সর্দি ও গলা ব্যথায় এড়িয়ে চলুন এই খাবারগুলো

শীত আসছে গুটি গুটি পায়ে।  সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে অনেকেই আবিষ্কার করেন তার গলা ব্যথা করছে অথবা সর্দি লেগে গেছে।  এমনকি গলা ব্যথার কারণে অনেকেই খাওয়াদাওয়াও করতে পারেন না। কয়েক দিনের মাঝেই এই গলা ব্যথা সেরে যায়। তবে এ সময়ে কিছু খাদ্য, পানীয় ও মশলা এড়িয়ে চললে গলা ব্যথার কষ্টটা কম হয়।

গলা ব্যথার সময়ে এমনিতে খাওয়া যায় না। এ অবস্থায় কিছু খাবার খেলে তা ব্যথা আরও বাড়িয়ে দিতে পারে।  সাধারণ অবস্থায় যেসব খাবার উপকারী, গলা ব্যথার সময়ে সেগুলোই এড়িয়ে চলা উচিত। জেনে নিন কী কি খাবার এড়িয়ে চলবেন এ সময়ে-

১) এড়িয়ে চলবেন যেসব মশলা

আমচুর, আনারদানা পাউডার, চটপটির মশলা, তেঁতুলের মশলা এগুলো গলা ব্যথার সময়ে খাওয়া উচিত নয়।  মূলত টক স্বাদের মশলাগুলো এ সময়ে এড়িয়ে চলা উচিত।

২) এড়িয়ে চলবেন যেসব খাবার

দুধ, দই ও পনির: ঠাণ্ডা লাগলে দই খাওয়া উচিত নয়। এতে বুকে কফ বেশি জমতে পারে। অন্যদিকে দুধ ও পনির খেলে ইনফ্লামেশন বাড়ে। তাই এ খাবারগুলো এড়িয়ে চলুন।

কমলা জাতীয় খাবার: টক খেলে ঠাণ্ডা কমে যেতে পারে, এই চিন্তা করে অনেকেই কমলা, জাম্বুরা, লেবু খান। কিন্তু এই টক খাবারগুলো গলা ব্যথা বাড়াতে পারে। গলা ব্যথা কমার জন্য অপেক্ষা করুন।

ভাজা খাবার: শরীর খারাপ থাকলে অনেকেই এটাসেটা খাওয়ার আবদার করেন। কিন্তু ফ্রেঞ্চ ফ্রাই, পুরি, সিঙ্গারা, ফ্রাইড চিকেন- এ ধরণের তেলে ভাজা খাবারগুলো একদিকে যেমন গলার জন্য ক্ষতিকর, অন্যদিকে তা হজম হতে চায় না সহজে। ফলে আপনি বেশি অসুস্থ বোধ করেন।

৩) এড়িয়ে চলবেন যে সব পানীয়

বেশি পরিমাণে চিনি দেওয়া খাবার এড়িয়ে চলুন। চিনি যত খাবেন, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তত দুর্বল হবে।  শুধু তাই না, কার্বোনেটেড পানীয় পেটে এসিড তৈরি করে আপনাকে আরও অসুস্থ করে ফেলতে পারে।  এর বদলে পান করতে পারেন আদা চা, ভেষজ চা ও পাতলা স্যুপ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

%d bloggers like this: