মিয়ানমার সরকারকে অবশ্যই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে হবে:প্রধানমন্ত্রী

সেনা নিপীড়নের মুখে রাখাইন রাজ্য থেকে প্রাণ ও মানের ভয়ে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া লাখ লাখ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে মিয়ানমার সরকারের অবশ্যই ফিরিয়ে নিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (৩০ জানুয়ারি) গণভবনে ভিয়েতনামের প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত ও দেশটির পররাষ্ট্র উপমন্ত্রী নগুয়েন কুক জুং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন। সাক্ষাতের বরাত দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

এসময় শেখ হাসিনা বলেন, রোহিঙ্গাদেরকে নিজ দেশে দ্রুত প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত রাখার উপরও জোর দেয়া হয়েছে। প্রত্যাবাসনের ইস্যুতে মিয়ানমারের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর হলেও বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছে।শেখ হাসিনা জানান, কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া মিয়ানমারের নাগরিকদের সাময়িকভাবে ভাসানচরে স্থানান্তর করা হচ্ছে। তাদের যেখানেই স্থানান্তর করা হোক বাংলাদেশ সরকার এখন পর্যন্ত রোহিঙ্গাদের সাধ্যমত প্রয়োজনীয় সেবা দিয়ে চলেছে।

সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্কের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুটি দেশটিই স্বাধীনতার জন্য সংগ্রাম করেছে। ফলে এই দুই দেশের মধ্যে যোগাযোগ শক্তিশালী করা ও ব্যবসা-বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দিতে হবে। বিশেষ করে বাংলাদেশ ও ভিয়েতনামের মধ্যে কৃষি খাতে সহযোগিতা বাড়াতে হবে। কেননা অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে কৃষি খাতের উন্নয়ন করা সম্ভব।

রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের জন্য একটি বিরাট সমস্যা উল্লেখ করে সাক্ষাতে ভিয়েতনামের প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত বলেন, এ সমস্যা মোকাবিলায় ভিয়েতনাম সরকার বাংলাদেশকে ৫০ হাজার মার্কিন ডলার দেবে।এসময় তিনি মানবিক বিবেচনায় লাখ লাগ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় শেখ হাসিনা সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

টানা তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হওয়ায়ও শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান নগুয়েন কুক জুং।

currentbdnews24.com