বিনোদন শিল্পে বিশাল বিনিয়োগ সৌদি আরবের

এ বছর পাঁচ হাজার বিনোদন অনুষ্ঠান আয়োজন করবে

বাণিজ্যিক চলচ্চিত্র চালু করার অনুমতি মিলেছে। সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে শুরু হয়েছে অপেরা হাউস নির্মাণ। এটিই হবে দেশটির প্রথম অপেরা হাউস। বিনোদন শিল্পে ৬৪ বিলিয়ন (ছয় হাজার ৪০০ কোটি) মার্কিন ডলার বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি সরকার। আগামী দশকজুড়ে চলবে বিনোদন শিল্পের নির্মাণযজ্ঞ।

বিবিসি জানিয়েছে, দেশটির বিনোদন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে চলতি বছর পাঁচ হাজারেরও বেশি বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান আয়োজনের পরিকল্পনা আছে। ‘ভিশন ২০৩০’ এর অংশ হিসেবেই ওই ‘সামাজিক এবং অর্থনৈতিক সংষ্কার কর্মসূচি’তে বিনিয়োগ করা হচ্ছে। দুই বছর আগে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এই ভিশনের ( রূপকল্প) কথা জানান।

৩২ ব্ছর বয়স্ক সৌদি যুবরাজ নিজ দেশের অর্থনীতিকে গতিশীল করতে তেলের ওপর নির্ভরতা কমিয়ে আনতে চান। এ ব্যাপারে বিনোদন শিল্পেও জোর দিতে চান তিনি।

গত ডিসেম্বর মাস থেকে বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় সৌদি সরকার। দেশটির বিনোদন কর্তৃপক্ষের প্রধান আহমেদ বিন আকিল আল-খতিব জানান, বিনোদন শিল্পে দুই লাখ ২০ হাজারেরও বেশি মানুষের কর্মসংস্থান হবে। তিনি বলেন, ‘আগে বিনিয়োগকারীরা দেশের বাইরে চলে যেত। সময় বদলে যাচ্ছে। এখন থেকে বিনোদনসংক্রান্ত সবকিছু দেশেই নির্মিত হবে।’

আল-খতিব বলেন, ‘সৃষ্টিকর্তা চাইলে ২০২০ সালের মধ্যেই পরিবর্তনটা দেখতে পারবেন আপনারা।’

গত বছর সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ নিজের দেশকে নিয়ে আকাঙ্ক্ষার কথা জানান। তিনি চান দেশটি ‘সকল ধর্ম, ঐতিহ্যের মানুষের জন্য উন্মুক্ত একটি আধুনিক ইসলামী দেশ’ হয়ে উঠুক। দেশটির ৭০ শতাংশ মানুষই তরুণ। তাদের জন্য পরিবর্তনের কথা জানান সৌদি যুবরাজ।

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

%d bloggers like this: