মারাত্মক অপরাধ!

এটা বেয়াদবী, সীমালঙ্ঘন এবং মারাত্মক অপরাধ!

প্রায়ই  দোকানের সামনে দাঁড়াতে খুব কষ্ট  পেতে হয়। তিন-চার জন ধূমপান করতেছে! বাধ্য হয়ে  কিছুক্ষন দূরে গিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়।  কেননা ধোঁয়ার কারনে শ্বাস টানা সম্ভব হয়  না! দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করতে হয়!

মো. মাকসুদ উল্যাহ্: আপনার ধূমপানের কারনে নিকটস্থ অধূমপায়ীর শ্বাস টানতে কষ্ট হয়,  শ্বাস বন্ধ রাখতে হয়!  এটা আপনারা জানেন কি?  একবার কিছুক্ষন শ্বাস বন্ধ রেখে দেখুন, কেমন লাগে! শ্বাস বন্ধ রেখে কতক্ষন থাকতে পারেন, যাচাই করুন!

সঙ্গত কারনেই  জনসমাগমে ধূমপান অত্যান্ত নিন্দনীয় কাজ। এটা অসভ্যতা!    পথের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। পথ চলার সময় আপনি ধূমপান করতে করতে এগিয়ে যাচ্ছেন! আপনার পিছনের অধূমপায়ী পথিকদের অনেক কষ্ট হচ্ছে! ধূমপান করে আপনি খুব মজা পাচ্ছেন বটে। কিন্তু পেছনের পথিকদের অনেকেই বিভিন্ন মুহূর্তে শ্বাস বন্ধ রাখতে বাধ্য হচ্ছে! কোনো সভ্য-ভদ্র লোকের দ্বারা এ ধরনের কাজ হতে পারে না।

আপনার ধূমপানের ধোঁয়ার কারনে নিকটস্থ অধূমপায়ীর শ্বাস বন্ধ রাখতে এতই কষ্ট হয় যে, আপনাকে কষে ২০-৩০ টি থাপ্পড় দিলেও সেই কষ্ট-যন্ত্রনার প্রতিবিধান হবে না!

রোযার মাস উপলক্ষে বরং ধূমপান পরিত্যাগ করুন। দয়া করে কাউকে ধূমপান  শেখাবেন না। নিজে ধ্বংসের পথে হাটছেন! দয়া করে অন্যকে ধ্বংসের পথে ঠেলে দেবেন না!

ধূমপান কখনোই স্মার্টনেস নয়, বরং এটা লজ্জার বিষয়!  ধূমপানের দুর্গন্ধ পায়খানার দুর্গন্ধের চাইতেও জঘন্য!

লেখকঃ চিকিৎসক, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, ঢাকা।

https://currentbdnews24.com

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

%d bloggers like this: